প্রতিকী ছবি

শুটিংয়ের কথা বলে একটি আবাসিক হোটেলে নিয়ে নবীন এক অভিনেত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে জনপ্রিয় এক নায়কের ব্যক্তিগত সহকারী শাওন আহমেদের বিরুদ্ধে। ভুক্তভোগী অভিনেত্রীর অভিযোগ, গত বুধবার বিকালে ফার্মগেটের গ্রিনরোডে মোঘল আবাসিক হোটেলের ৫ তলার একটি কক্ষে ওই যুবক শুধু যৌন হেনস্তাই করেননি, ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে তাকে হত্যার চেষ্টাও চালিয়েছেন।ঘটনার দিন রাতেই রাজধানীর শেরেবাংলানগর থানায় লিখিতভাবে অভিযোগ জানান, ওই তরুণী রাজধানীর মিরপুর-১০ নম্বর এলাকার বাসিন্দা। প্রাথমিক তদন্ত শেষে বৃহস্পতিবার অভিযোগটি মামলা হিসেবে থানায় রেকর্ড হয়। তবে গতকাল শুক্রবার রাতে এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পুলিশ অভিযুক্ত শাওনকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি। ভুক্তভোগী আমাদের সময়কে বলেন, বুধবার বিকালে একটি নাটকের শুটিং শেষে এফডিসিতেই অবস্থান করছিলাম। চারটার দিকে নিজেকে জনপ্রিয় এক নায়কের পিএ পরিচয় দিয়ে শাওন বলেন, উত্তরা ও ফার্মগেটে তার বসের শুটিং চলছে। জরুরি ভিত্তিতে সেখানে দুজন আর্টিস্ট প্রয়োজন। কাজের ধকলে অসুস্থ বোধ করায় আমি তাকে না করে দিই। কিছুক্ষণ পর ঘুরে এসে কাজটি উঠিয়ে দেওয়ার জন্য অনুনয় করেন শাওন। বলেন, সূর্যের আলো থাকতে থাকতেই কাজ শেষ হয়ে যাবে। লোকেশান সেট করা হয়েছে ভবনের ছাদে। শাওনকে বহুবার এফডিসিতে দেখেছি, তাকে এখানকার অনেকেই সমীহ করেন বলে শুটিংয়ে যেতে রাজি হই।

তিনি বলেন, শাওন একটি ছেলে ও আমাকে নিয়ে আনন্দ সিনেমা হলের উল্টোপাশে অবস্থিত গ্রিনরোডের ১০৩/এ/২ নম্বর ভবনের সামনে এসে দাঁড়ায়। ভবনটিতে আবাসিক হোটেল, কোচিং সেন্টার ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারসহ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান রয়েছে। ভবনটির ছাদে শুটিং সেট করা আছে জানিয়ে আমাকে নিয়ে সোজা ছাদে চলে যান শাওন। সেখানে গিয়ে শুটিংয়ের কোনো আলামত দেখতে পাইনি। এই বিষয়ে শাওনকে প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, সবাই কস্টিউম পাল্টাচ্ছে; তুমিও যাও। একজন এসে ৫ তলার একটি কক্ষ দেখিয়ে দেন। ভেতরে গিয়ে কোনো আর্টিস্ট দেখতে না পেয়ে সন্দেহ হয়। শাওন কক্ষের ভেতরে এলে ‘কাজ করব না’ জানিয়ে আমি রুম থেকে বেরিয়ে আসতে চাই। এ সময় শাওন দরজার কাছ থেকে জোর করে আমাকে ভেতরে ঢুকিয়ে দরজা লাগিয়ে দেন এবং আমার সঙ্গে ধস্তাধস্তি শুরু করেন। অসংখ্যবার চড়-থাপ্পর দেন। অনেক অনুনয় করেও যখন কিছুতেই কিছু হচ্ছিল না, তখন সম্ভ্রম বাঁচাতে আমি চিৎকার শুরু করি। পরিস্থিতি বেগতিক দেখে আমার গলায় পরনের ওরনা প্যাঁচিয়ে শ্বাসরোধের চেষ্টা করে শাওন। একপর্যায়ে গ্যাং রেপ করার হুমকি দিয়ে রুমের দরজার বাইরে থেকে আটকে দিয়ে আমার একটি মোবাইল ফোন নিয়ে বেরিয়ে যান শাওন। যাওয়ার সময় কাউকে ইনজেকশন জাতীয় কিছু একটা আনার কথা বলছিলেন তিনি। এ সময় কী করব ভেবে না পেয়ে দরজার পাশেই দাঁড়িয়ে ছিলাম। কিছু সময় পর দরজার লক খোলার শব্দ পেয়ে একঝটকায় দুই থেকে তিনজন যুবককে ধাক্কা দিয়ে ৫ তলা থেকে দৌড়ে নামছিলাম। কিন্তু দোতলায় আসতেই আটকায় হোটেলের আরেক যুবক। কোনোভাবেই যেতে দেবে না শুনে তাকেও ধাক্কা দিয়ে নিচে নেমে আসি।বিষয়টি আমার স্বামীকে জানালে তিনি এসে হোটেল কর্তৃপক্ষের কাছে সিসিটিভির ফুটেজ এবং শাওন যে রুম ভাড়া নিয়েছেন, তার সপক্ষে প্রমাণ চান। কিন্তু কোনো কিছুই দেখাতে পারেননি তারা। একপর্যায়ে টহল পুলিশকে ঘটনা সবিস্তারে জানালে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে এবং হোটেলের লোকজনের সঙ্গে কথা বলে। তাদের পরামর্শে রাতে থানায় গিয়ে লিখিত অভিযোগ জানাই। এর পর থেকে অভিযোগ উঠিয়ে নিতে মোবাইলে হত্যাসহ নানা ধরনের হুমকি দিয়ে আসছেন শাওন।জনপ্রিয় বাংলা ছায়াছবি কিং খান ও দহন ছাড়াও বেসরকারি একটি টেলিভিশন চ্যানেলে প্রচারিত সিরিয়াল অপরাজিতাসহ বেশ কয়েকটি নাটক এবং সিনেমায় পার্শ্ব অভিনেত্রীর ভূমিকায় অভিনয় করেছেন বলেও জানান তিনি।নবীন অভিনেত্রীর অভিযোগের বিষয়ে জানতে গতকাল অভিযুক্ত শাওনের মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও সাড়া মেলেনি।মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শেরেবাংলানগর থানার এসআই মো. মোস্তাফিজুর রহমান জানান, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত যুবক পলাতক রয়েছেন। তাকে ধরতে পারলে ঘটনার বিষয়ে বিস্তারিত জানা যাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here