শিকড় ডেস্ক: ভৌগলিক অবস্থান, খাদ্যাভাস ও ঝুঁকিপূর্ণ পেশার কারণে সিলেট অঞ্চলে ক্যানসার আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি বলে মন্তব্য করেছেন বক্তারা।

বৃহস্পতিবার বিকেলে নগরীর একটি অভিজাত হোটেলে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ও নার্সদের নিয়ে ছয় দিনব্যাপী ‘ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স অন ক্যানসার অ্যান্ড পেলিয়েটিভকেয়ার’ শীর্ষক সেমিনারের উদ্বোধনী দিনে বক্তারা একথা বলেন।

প্রধান অতিথি হিসেবে সেমিনার উদ্বোধন করেন জাতীয় অধ্যাপক ডা. শায়লা খাতুন।

বক্তারা বলেন, দেশের অন্য স্থানের তুলনায় সিলেটে ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বেশি। কেননা, এ অঞ্চলে চা শ্রমিকসহ বিভিন্ন দরিদ্র জনগোষ্ঠীর বসবাস বেশি। অবশ্য প্রথম অবস্থায় ক্যানসার শনাক্ত করা গেলে চিকিৎসায় সম্পূর্ণ সুস্থ করা সম্ভব বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।

‘সিলেটের কয়েকটি হাসপাতালে ক্যানসারের আধুনিক চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। প্রাথমিক পর্যায়ে রোগী এলে তাকে চিকিৎসার মাধ্যমে সুস্থ করে তোলা সম্ভব।’

আয়াত এডুকেশন, ওসমানী মেডিকেল কলেজ, নর্থইস্ট মেডিকেল কলেজ, আমেরিকার ম্যাসাচুসেটস জেনারেল হাসপাতাল ও বোস্টনের সিমন্স কলেজ যৌথভাবে এ সেমিনারের আয়োজন করে।

সেমিনারে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন হার্ভার্ড ইউনির্ভাসিটির সহযোগী অধ্যাপক ডা. বিমলাংশু দে, আয়াত অ্যাডুকেশনের চেয়ারম্যান তাহসিন আমান ও প্রধান পৃষ্ঠপোষক নুসরাত আমান।

অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক (ব্রিগেডিয়ার জেনারেল) একেএম মাহবুবুল হক, ওসমানী মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. মুর্শেদ আহমদ চৌধুরী, নর্থইস্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ডা. শাহরিয়ার হোসেন চৌধুরী প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here