শিকড় ডেস্ক: কাশ্মিরের পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলায় নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য নিহত হওয়ার ঘটনা নিয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি রাজনীতি করছেন বলে অভিযোগ তুলেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। মঙ্গলবার (৫ মার্চ) কলকাতায় নিজের কার্যালয় থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পথে সাংবাদিকদের কাছে তিনি এই অভিযোগ করেন। আগাম গোয়েন্দা তথ্য থাকার পরও বিজেপি নেতৃত্বাধীন সরকার জওয়ানদের সুরক্ষায় ব্যবস্থা নেয়নি বলে প্রশ্ন তোলেন তিনি। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে উদ্দেশ্য করে তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা বলেন, ‘জওয়ানের রক্ত নিয়ে ভোটে জিতবে, এটা হতে দেওয়া যায় না’।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি কাশ্মিরের পুলওয়ামায় ভারতের সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশের গাড়িবহরে জঙ্গি হামলায় বাহিনীটির ৪০ সদস্য নিহত হয়। পাকিস্তানভিত্তিক জঙ্গি গোষ্ঠী জইশ-ই-মোহাম্মদ হামলার দায় স্বীকার করে। হামলার পরদিনই পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা অভিযোগ তুলেছিলেন তদন্ত ছাড়াই এই ঘটনায় পাকিস্তানকে দোষারোপ করা ঠিক নয়। বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে এই ঘটনা নিয়ে রাজনীতি করারও অভিযোগ তোলেন তিনি’।

মঙ্গলবারও সেই প্রশ্নে অনড় থেকে মমতা বলেন, ‘বিজেপি পার্টিটাকেও মোদি-অমিত শাহ (বিজেপি সভাপতি) প্রাইভেট কোম্পানি করে দিয়েছে। সবাইকে ভয় দেখিয়ে, চোখ রাঙিয়ে রাখা হচ্ছে। যে সমালোচনা করছে তাদেরকেই পাকিস্তানি, দেশদ্রোহী বানিয়ে দেওয়া হচ্ছে’।

পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলার জেরে গত ২৬ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের আকাশসীমায় ঢুকে ভারতীয় বিমানবাহিনী গোলাবর্ষণের পর জইশ-ই-মোহাম্মদের ৩০০ জঙ্গি হত্যার দাবি করে দিল্লি। পরদিন দুটি ভারতীয় যুদ্ধবিমান ভূপাতিত করে এক পাইলটকে আটকের কথা জানায় পাকিস্তান। ভারতও পাকিস্তানের এক যুদ্ধবিমান ভূ-পাতিত করার দাবি করে।

পাকিস্তানে বিমান হামলার পর থেকে নিহত জঙ্গির সংখ্যা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে থাকা মমতা মঙ্গলবারও বলেন, আমরা দেশের পক্ষে, জনগণের পক্ষে। কিন্তু মোদির বিপক্ষে। মোদিবাবু আজকে দেশের প্রধানমন্ত্রী পদের লজ্জা। দেশের লোক কিন্তু প্রকৃত সত্যিটা জানতে পারছে না। যা ইচ্ছে শাস্তি দিতে পারে, আই ডোন্ট কেয়ার। একজন সাধারণ নাগরিক হিসেবে আমার কথা বলার অধিকার আছে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here