শিকড় সন্ধানে ডেস্ক: সিঙ্গেল বলে কি নিজেকে অভিশপ্ত ভাবছেন? বিষণ্ণতা জেঁকে বসেছে? না, এবার ঝেড়ে কাশুন। বয়ফ্রেন্ড ভাড়া করুন। তাঁর সঙ্গে গল্প-গুজব করুন। ব্যস, হাওয়ায় মিলিয়ে যাবে বিষণ্ণতা!

কিন্তু কীভাবে?

বাজারে এসেছে ‘রেন্ট এ বয়ফ্রেন্ড’ অ্যাপস, যেখানে ঢুঁ মারলেই অনেক বয়ফ্রেন্ড পাবেন। তবে ঘণ্টাপ্রতি অর্থ গুনতে হবে। বিষণ্ণতা কমাবেন, আর একটু খরুচে হবেন না, তা কি হয়? কিপটেমি ছেড়ে হাত খুলুন!

সিঙ্গেল মেয়েদের বিষণ্ণতা কমাতে ভারতের মুম্বাইয়ের কৌশল প্রকাশ নামের এক তরুণ রেন্ট বয়ফ্রেন্ড (আরএবিএফ) অ্যাপস খুলেছেন। ২৯ বছরের এ তরুণ বলছেন, এটি সেবা অ্যাপস। এ অ্যাপস না কি আপনাকে বিস্মিত করবে! যাহোক, প্রতিষ্ঠাতা কৌশল বলছেন, বিষণ্ণতার মতো মানসিক স্বাস্থ্যগত ঝুঁকি কমাবে এ অ্যাপস। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের।

চলতি মাসের আগস্টেই এই অ্যাপসটির উদ্বোধন করা হয়েছে। কৌশল বলেন, আরএবিএফ অন্যান্য ডেটিং অ্যাপস থেকে আলাদা। কারণ, বিষণ্ণতা থেকে মুক্তি পেতেই এ সেবা অ্যাপস চালু হয়েছে। বয়ফ্রেন্ডদের তিন ক্যাটাগরিতে ভাগ করা হয়েছে— সেলিব্রেটি, মডেল ও সাধারণ মানুষ।

যদি আপনি বয়ফ্রেন্ড বুক করতে চান, তবে প্রথমে আরএবিএফে একটি অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে। এরপর কোথায় তাঁর সাথে দেখা করতে চান, সেই স্থান নির্ধারণ করতে হবে। মজার ব্যাপার হলো, এই বয়ফ্রেন্ডদের তালিকায় রুবারো মিস্টার ইন্ডিয়া-২০১৮ সুরজ দাহিয়াও আছেন!

কিন্তু কীভাবে মানসিক স্বাস্থ্যগত ঝুঁকি কমবে? আরএবিএফ প্রতিষ্ঠাতা বলেন, বয়ফ্রেন্ডরা যদি বুঝতে পারেন ক্লায়েন্টের বিষণ্ণতা বা মানসিক রোগ আছে, তবে তাঁরা মনোবিদদের একটি দলের কাছে যাওয়ার পরামর্শ দেবেন।

যদি কোনো পুরুষ বা নারী সঙ্গহীনতার কারণে তীব্র একাকিত্ব বা কষ্টে ভোগেন, তখন এই অ্যাপসটি আশার আলো দেখাবে। ভুক্তভোগীরা অ্যাপসে নিবন্ধিত বয়ফ্রেন্ডদের কাছ থেকে সময় কিনে নেবেন। এটা হবে ঘণ্টাভিত্তিক।

দিল্লির মনোবিদ দিব্য দুরেজা বলেছেন, যদি এই অ্যাপস রোমান্টিক ঘনিষ্ঠতা অনুমোদন না করে, তবে অ্যাপস ব্যবহারকারীদের চোখে তা মিথ্যা বলে প্রতীয়মান হবে। শঙ্কার কথাও বলেছেন তিনি। বলেছেন, এটা মিথ্যা আঙিনার ওপর দাঁড়িয়ে আছে আর তা ভুল দিকে ব্যবহৃত হতে পারে।

যাহোক, এই অ্যাপসটি সারা বিশ্বের মানুষ ব্যবহার করতে পারবে না। শুধু মুম্বাইয়ে বসবাসরত মানুষই এই অ্যাপস ব্যবহার করতে পারবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here