রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ০২:৪৭ পূর্বাহ্ন
শিকড় সন্ধানে নোটিশ :
মিডিয়াভুক্ত সাপ্তাহিক শিকড় সন্ধানে পত্রিকার জন্য সারাদেশে জেলা প্রতিনিধি আবশ্যক। শিক্ষাগত যোগ্যতা : কমপক্ষে স্নাতক ডিগ্রীধারী হতে হবে। আবেদন করুন : editorshikornews@gmail.com  * প্রিয় পাঠক, আপনার প্রিয়জনের জন্মদিনের শুভেচ্ছা বা মৃত্যু সংবাদ ছবিসহ পাঠাতে পারেন।

পরকীয়ার জেরে শিশু হত্যার অ‌ভি‌যোগ মা‌য়ের বিরু‌দ্ধে

স্টাফ রিপোর্টার
মঙ্গলবার, ২৩ নভেম্বর, ২০২১

কেরানীগঞ্জের হাসনাবাদ এলাকায় পরকীয়া প্রেমের জেরে মা‌য়ের বিরু‌দ্ধে ৯ মা‌সের শিশুকে নানার বা‌ড়ির ছাদ থে‌কে ছু‌ড়ে ফে‌লে হত্যার অ‌ভি‌যোগ ক‌রে‌ছেন দা‌দি।

ত‌বে শিশু‌টির মামার দা‌বি, নিহত আবরার ছা‌দে খেল‌তে গি‌য়ে অসতর্কতা বশতঃ প‌ড়ে গুরুতর আহত হ‌লে তারাই পুরান ঢাকার এক‌টি বেসরকারী হাসপাতা‌লে ভ‌র্তি ক‌রেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার সকা‌লে শিশু‌টির মৃত‌্যু হয়।

এ ঘটনায় শিশু‌টির দা‌দির অ‌ভি‌যো‌গের ভি‌ত্তি‌তে দ‌ক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা পু‌লিশ লাশের ময়না তদন্তের জন‌্য রাজধানীর স‌্যার স‌লিমুল্লাহ মে‌ডিক‌্যাল ক‌লেজ মিট‌ফোর্ড হাসপাতা‌লের ম‌র্গে প্রেরণ ক‌রেছে।

নিহতের দাদী আয়েশা আক্তার জানান, গত আড়াই বছর আগে দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জের হাসনাবাদ এলাকার মৃত ছলিম উল্লাহ ভুঁইয়ার বড় মেয়ে সুপ্তিকে বিয়ে করেন দনিয়ার আদর্শ নগর রোডের বা‌সিন্দা কাতার প্রবাসী পারভেজ আহমেদ।
বি‌য়ের পর থে‌কে শিশু সন্তান‌কে নি‌য়ে শশুর বাড়ী ছেড়ে সুপ্তি তার বাবার বাড়ীতে থাক‌তেন । সোমবার সকালে ওই এলাকার এক প্রতিবেশী তা‌কে মোবাইল ফোনে জানান যে, তার নাতী ছাদ থেকে পড়ে গে‌ছে। তাকে গেন্ডা‌রিয়ার আজগর আলী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সে আজ মারা গেছে। এ কথা শুনে তিনি হাসপাতালে ছুটে যান।
তিনি কান্না বিজড়িত কন্ঠে আরো বলেন, এ টুকুন একটা ফুটফুটে শিশু ছাদ থেকে একা পড়ে মরতে পারে না। তাকে উপর থেকে ছুড়ে ফেলে দেয়া হয়েছে। দীর্ঘ‌দিন ধ‌রে আমার প্রবাসী ছেলের সঙ্গে বউ‌য়ের মনোমালিণ্য চলছে। সে আমার ছেলের সংসার করবে না বলে বিভিন্ন ভাবে শাসিয়ে আসছে। শুনেছি, অন্য একটা লোকের সাথে তার পরকীয়া সম্পর্ক র‌য়ে‌ছে। পথের কাঁটা দূর করতে ওরা আমার নাতীতে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে। প্রথমে লাশ দিতে চায়নি। প‌রে থানায় অ‌ভি‌যোগ ক‌রার পর পু‌লিশ এ‌সে লাশ এ‌নে‌ছে ব‌লে জানান তি‌নি।

সরেজমিনে দেখা যায়, মিটফোর্ড হাসপাতালে ময়না তদন্ত শেষে লাশটি সন্ধ্যার পর দাদী আয়েশা আক্তারের কাছে হস্তান্তর করা হয়ে‌ছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় কোনো মামলা হয়নি।
তবে মিটফোর্ড হাসপাতালের ডোম ঘরের সামনে এক প্রশ্নের জবাবে নিহতের মামা রবিন জানান, আসলে শিশুটি খেলতে গিয়ে বাড়ীর ছাদ থেকে পড়ে মারা গেছে। আমার বোন সুপ্তির পরকীয়ার ঘটনা সম্পুর্ণ মিথ্যা। প্রায় ৭৫ হাজার টাকা হাসপাতালে খরচ করে ভাগিনাকে বাঁচাতে পারিনি।

কেরানীগঞ্জ থানার এসআই সজিব আহমেদ জানান, আবরারের দাদি আয়েশা বেগম থানায় হত্যাকাণ্ডের অভিযোগ করেছেন। সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ মিটফোর্ড হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে ব‌লে জানান তি‌নি।


Theme Created By ThemesDealer.Com
Translate »